1. jasim3444@gmail.com : Coxtribune.com :
  2. jasimnahid555@gmail.com : Jasim Nahid : Jasim Nahid
  3. mdboshirulla@gmail.com : MD Boshir : MD Boshir
  4. mohammadsiddique8727@gmail.com : Md Siddique : Md Siddique
  5. tribunecox@gmail.com : Jasim Uddin : বশির উল্লাহ
মন্দিরে হামলা চেষ্টার ইতিবৃত্তঃ কাব্য সৌরভ - Coxtribune.com
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ১১:২১ অপরাহ্ন

মন্দিরে হামলা চেষ্টার ইতিবৃত্তঃ কাব্য সৌরভ

কাব্য সৌরভ
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৫ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৮২ বার ভিউ

হেফাজত নেতা মানুনুল হক ইস্যুতে গত শনিবার রাতে মহেশখালীর বিভিন্নস্থানে মিছিল হয়েছে। একটি মিছিল উত্তর নলবিলা বড়ুয়া বাজার অভিমূখে আসে এবং তার’ই একাংশ বাজারস্থ মন্দিরের দিকে যেতে চায় হামলা কিংবা তাদের অজানা উদ্দেশ্যে। কিছুদূরে থাকা আমি (কাব্য সৌরভ) দৌঁড়ে এসে শ্রদ্ধেয় আলী আজগর মহোদয়ের দোকান সংলগ্ন স্থানে সৈকত বৌদ্ধ মন্দিরের সম্মুখে দাঁড়িয়ে যাই একা।

ওই দিকে কি? ওই দিকে কেন যাচ্ছেন এই প্রশ্ন ছুড়ে দু-হাত প্রসস্থ করে, মিছিলের অগ্রভাগে থাকা মন্দিরে দিকে যেতে চাওয়াদের বাধা দেই। তাদের সাথে আমার প্রচণ্ড ধাক্কাধাক্কি হয়। গায়ে থাকা পাঞ্জাবির বোতাম ছিঁড়ে ফেলে, হাঁটুর নিচে লাথি মারে। এক পর্যায়ে আমাকে লাঠি কিংবা বাঁশ (অন্ধকারে খেয়াল করতে পারিনি) দিয়ে স্বজোরে বাম কাঁধে আঘাত করে। আমাকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করে সাথে তো ধাক্কাধাক্কি আছেই। দু’হাতে প্রসস্থ হয়ে দাঁড়ানো দু’হাত ধরে টানাটানি তর্ক চলছেই।

আমি শক্তভাবে দৃঢ়তার সাথে তাদের এসব সয়ে যাচ্ছিলাম বিনয়ের সাথে বলছিলাম “ওঠা মন্দির আপনারা ওই দিকে যেতে পারবেন না, ওই দিকে কি? সংঘাত কেন করছেন ইসলামে তো সংঘাতের প্রশ্রয় নেই। আপনারা আমাকে মারুন রক্তাক্ত করুন আমি মুসলিম কিন্তু আপনারা ওইদিকে যেতে পারবেন না ভাই, কেন যাবেন ওইদিকে, ওই দিকে যেতে দিবো না”

তাদের সাথে এমন ধাক্কাধাক্কি পাঞ্জাবির বোতাম ছিঁড়ে কলার ধরে টানাটানি, তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি গালিগালাজেও বিনয়ের সাথে শক্ত মনোবলে ছিলাম। যদিও লাঠির বারি খাওয়ার পর কিছুটা ভয়ে পেয়ে বসেছিলো আমাকে। এই ভেবে যে, হয়তো অজস্র লাঠির বারি পরতে লাগলো। কিন্তু তা হয়নি আমার লাঠির বারিতে আমার এলাকার একজন আমার পক্ষে এসে দাঁড়ালেন প্রতিবাদ করতে, সাহস পেলাম, অসীম সাহস।

মিছিল চলে গেলো সকলের মধ্যে আওয়াজ উঠতে লাগলো অন্য এলাকা থেকে এসে এই এলাকায় এসব করতে দেওয়া হবে না। আমরা অপরাপর সম্প্রতির বন্ধনে আবদ্ধ এটা অন্য এলাকা থেকে আসা মানুষদের জন্য নষ্ট হতে পারে না। এই এলাকার ধর্মীয় সম্প্রতি অটুট, তা এমনই থাকবে। পরে অনেকে আসলেন, আমার খোঁজ নিলেন মাস্টার জেমসেন স্যার সহ বড়ুয়া মুসলিম অনেকেই ঘটনার বিবরণ জানতে চাইলেন।

এই এলাকার সম্প্রতি রক্ষায় সকলকে ঐক্যবদ্ধতার সাথে থাকতে উভয়ের মধ্যে অপরাপর বন্ধন রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে। একপাক্ষিক সম্প্রতি কখনো ঠিকে না। আমাদের মধ্যে যে সম্প্রতি তা অন্য এলাকায় নেই, এবং এটা আগামীতে আরো দৃঢ় হবে অপরাপর সম্প্রতিতে একে অপরকে সুরক্ষিত রাখতে এগিয়ে আসবো আমরা। এটাই মনুষ্যত্ব, ধর্ম এটাই বলে পৃথিবীর সকল মানুষের জয় হোক।

 

কাব্য সৌরভ

সংবাদকর্মী 

মহেশখালী

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2020 coxtribune.com
Desing & Developed BY Serverneed.com
error: Content is protected !!