1. jasim3444@gmail.com : Coxtribune.com :
  2. mdboshirulla@gmail.com : MD Boshir : MD Boshir
  3. tribunecox@gmail.com : Jasim Uddin : বশির উল্লাহ
নানুকে টিভিতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখিয়ে বলতাম আমিও একদিন টিভি তে আসবো: সোহাম খান - Coxtribune.com
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন

নানুকে টিভিতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখিয়ে বলতাম আমিও একদিন টিভি তে আসবো: সোহাম খান

আবরার আসিফ
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ২১ জুলাই, ২০২১
  • ৯৬ বার ভিউ

বর্তমানে অভিনয়ে তরুণ প্রতিভা দেখা যাচ্ছে নাটক,বিজ্ঞাপন, মিউজিক ভিডিও’তে। নিজস্ব প্রতিভায় ধীরে ধীরে বিকশিত হচ্ছেন অনেকেই। তারমধ্যে এসময়ের অন্যতম জনপ্রিয় তরুণ অভিনেতা সোহাম খান।

সোহমের জন্ম সৌদি আরব। জন্মের তিন বছর পর্যন্ত বেড়ে ওঠা সেখানেই। তারপর চলে যান দুবাইয়ে। তার শৈশব কাটে দুবাই’তে। মা,বাবা এবং ছোট বোনের ছোট্ট পরিবার তার।

প্রাথমিক, হাইস্কুল পড়াশোনা দুবাইতে হলেও ২০১৬ সালে ঢাকায় আসার পর নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি তার বি.বি.এ শেষ করেন।

বর্তমানে দেশের অন্যতম স্বনামধন্য মার্কেটিং এজেন্সি ‘এডকম’ এ ইন্টার্ন হিসেবে কাজ শুরু করেছেন পাশাপাশি অভিনয় করে চলছেন বিজ্ঞাপনে।

দেশ ওয়েভ কথা বলে সোহাম খানের সাথে। ছোট্ট সাক্ষাতকারে তাকে করা হয় কিছু প্রশ্ন-

দেশ ওয়েভঃ অবসর সময়ে কি করা হয়?

সোহামঃ অবসরের সুযোগ নেই তেমন বর্তমানে আমার। বেশিরভাগ সময় অফিসে কাটছে। আবার শুটিংয়ের সময় শুটিং করা হচ্ছে। মাঝে মাঝে পুল খেলা হয়।

দেশ ওয়েভঃ শুনেছি খেলাধুলার প্রতি বিশেষ আকর্ষণ ছিলো আপনার?

সোহামঃ আমি পুল খেলতে ভালোবাসি। এছাড়া দুবাইতে আমি স্ট্রেট ভলিবল প্লেয়ার ছিলাম। ২০১৪ সালে সেখানে স্টেট ভলিবল প্লেয়ার অফ দ্যা ইয়ার এর সম্মাননা পাই। ইন্ডিয়াসহ বেশ কিছু যায়গায় আমি ভলিবল টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করেছিলাম।

দেশ ওয়েভঃ আপনার পছন্দের সিনেমা নির্মাতা কে?

সোহামঃ আমি মোস্তফা সরোয়ার ফারুকী ভাইয়ের অনেক কাজ দেখেছি এবং ভালোও লাগে। তিনিই পছন্দের নির্মাতা।

দেশ ওয়েভঃ আপনার আইডল কে?

সোহামঃ আসলে আমি অভিনেতায় বিশ্বাসী, নায়কে না। পছন্দের অনেক অভিনেতাকে ভালো লাগে যেমন ইন্ডিয়ার পঙ্কজ ত্রিপাটি, নেওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। হলিউডে লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, টম হ্যাংকস এর ভক্ত আমি। ওরাই আমার আইডল।

দেশ ওয়েভঃ আপনার করা উল্লেখযোগ্য কিছু কাজের নাম যা দর্শকের মাঝে ভালো সাড়া ফেলে?

সোহামঃ আসলে আমার অনেক অডিশন দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন টি.ভি.সি তে। প্রথম কাজ করা হয় ২০১৭ সালে এয়ারটেল এর সাথে বিজ্ঞাপনে। সেটার নির্মাতা ছিলেন শঙ্ক দাসগুপ্ত। এর আগে ব্যাকগ্রাউন্ডে কিছু কাজ করেছিলাম। এয়ারটেল এর কাজের পর আস্তে আস্তে একটা রেসপন্স আসা শুরু করে।

দেশ ওয়েভঃ অফিশিয়ালি আপনার প্রথম কাজ কোনটি এবং কাজটায় আপনার অনুভূতি কেমন ছিলো?

সোহামঃ আমার ক্যারিয়ারের প্রথম সেরা কাজ ‘সিঙ্গার’ এর বিজ্ঞাপন। হাসান তৌফিক অংকুর ছিলেন ডিরেক্টর। এছাড়া পাঠাও, উবার, শার্প, দারাজ,কোকাকোলা, বাংলালিংক সহ অনেক ব্রান্ডের বিজ্ঞাপনে কাজ করি আমি। গ্রামীণফোনের ক্যাম্পেইন ‘নতুন গানের খোঁজে’র মিউজিক ভিডিওটি আমার ৫০তম কাজ বলা যায়। এছাড়া আমার করা একটা ওয়েবসিরিজ যেটা দর্শকমহলে বেশ ভালো সাড়া পায়। এছাড়া আমার অভিনীত নাটক অভিশাপ, শুভ্রতা, প্রিয়তমা দর্শকমহলে খুবই ভালো সাড়া ফেলে।

দেশ ওয়েভঃ ক্যামেরার সামনে আসার আগ্রহ কিভাবে জন্ম নেয়?

সোহামঃ নাটক বা বিজ্ঞাপন করার স্বপ্ন আমার ছোটবেলা থেকেই ছিল। আমি যখন ক্লাস ৭ এ পড়ি ঈদ এ নানু দুবাই এসেছিলো। তখন আমি নানুকে টিভিতে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখিয়ে বলতাম আমিও একদিন টিভি তে আসবো। তখন নানু বলতো ইনশাআল্লাহ তোমার স্বপ্ন পূরণ হবে। এর পর আমি বাংলাদেশে এসেই কাজ শুরু করেছি। প্রথমে একটু কষ্ট হয়েছিল, কারণ আমি মিডিয়ার কাউকে চিনতাম না। তবে আস্তে আস্তে ব্যাপার গুলো সহজ হয়ে গিয়েছে।
অডিশন দেওয়ার পর অনেক বার রিজেক্ট হয়েছি তবে পরে আবার কাজ পেয়েছি। আমি জীবনে কখনো হার মানি নাই । আমি কাজ করেই যাচ্ছি। নিজের যোগ্যতায় এখন পর্যন্ত ৫০ টা টিভিসি করেছি। আসলে আল্লাহর দোয়া এবং মানুষের ভালোবাসায় এতদূর পর্যন্ত আসতে পড়েছি।

আমি অনেক বেছে বেছে কাজ করি। আমি অডিয়েন্স কে ভালো কাজ দেখাতে চাই। আমি অডিয়েন্স কে ভালো কাজের মাধ্যমে বিনোদন দিতে চাই। এমন না যে আমি শুধু কাজ করতে থাকবো আর সবাই বলবে যে ও তো সব ধরনের কাজ করে।এইটা আমি চাইনা।

দেশ ওয়েভঃ অভিনয় করবেন বলে ঠিক করার পর পরিবার কেমন সাপোর্ট করে আপনাকে?

সোহামঃ আমার পরিবারের কেউ মিডিয়ার না। প্রথম যখন কাজ করতাম তখন অনেকেই বলতো এত কষ্ট করে কেন এইগুলো করতেসি। এইগুলো করা লাগবেনা। তখন আমি বলতাম যে আমার নিজের একটা পরিচয় বানানোর জন্য আমি করবো। আমার যতই কষ্ট হোক, আমি করবো। আমি ক্যামেরার সামনে কাজ করে নিজের পরিচয় বানাবো। তখন ২০১৬ সাল থেকেই আমি এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

১/২ টা কাজ করেছি তখন পরিবার তেমন একটা গুরুত্ব দেয়নাই যখন তারা বুঝতে পেরেছে আমি এই কাজে অনেক খুশি তখন আমাকে অনেক সাপোর্ট করেছে। আমার আব্বু আম্মু আমাকে সবসময় সাপোর্ট করেছে। যখন আমি ২০১৭ সাল থেকে একক কাজ শুরু করেছি তখন তারা খুব গর্ব করতো। আমার কাজ দেখতেন এবং শেয়ার করতেন সবাইকে।

দেশ ওয়েভঃ এখন পর্যন্ত আপনার কাছে আপনার করা সেরা কাজ কোনটি এবং কেনো?

সোহামঃ আমার ‘সিঙ্গার’ এর প্রথম কাজটায় আমি জানতাম না আমি কি করতেসি, আমি লাফাইতেসি গাইতেসি। এই টিভিসি টা প্রচার হওয়ার পর আমাদের বাংলাদেশের অন্যতম সেরা টিভিসি’তে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ থেকে অনেক অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিল এই টিভিসি। ফ্রেশ টিস্যু’র জন্য আমাদের বিজ্ঞাপনটি গোল্ড অ্যাওয়ার্ড পায় এশিয়া থেকে। এই অভিজ্ঞতাটা আলাদা ছিলো। আউট পুট দেখে আমার মনে হয়েছিল যে না কিছু একটা করতে পেরেছি।

দেশ ওয়েভঃ শৈশবের একটা মূহুর্ত যা কখনো ভুলবেন না।

সোহামঃ ছোটবেলার বন্ধুদের সাথের মুহূর্তগুলো অনেক মিস করি। ঘুরতাম, খেতে যেতাম,মারামারি করতাম এসব কিছু খুব মনে পড়ে।

দেশ ওয়েভঃ বর্তমান ব্যস্ততা কি নিয়ে যাচ্ছে?

সোহামঃ আমি এই টানা ৪ মাসে অনেক কাজ করেছি। ৬ টা টিভিসি এক সাথে করলাম। টানা ব্যস্ততা যাচ্ছে, তারপর সামনে ঈদ। তারপর একটা মিউজিক ভিডিও আছে। আবার একটা সিনেমার কথাও চলছে । সিনেমার কথা ফাইনাল হলে দর্শকদের অবশ্যই জানাবো।

দেশ ওয়েভঃ আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি?

সোহামঃ আমি যতদিন পারি যতদিন বেঁচে আছি দর্শকদের বিনোদন দিয়ে যাবো। আমি সব ভালো কাজ করতে চাই। ভালো সিনেমার অফার আসলে করবো।

দেশ ওয়েভঃ ধন্যবাদ আপনাকে। ভবিষ্যতের জন্য শুভকামনা।

সোহামঃ আপনাকেও ধন্যবাদ, দেশ ওয়েভ’কেও শুভকামনা।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2020 coxtribune.com
Desing & Developed BY Serverneed.com
error: Content is protected !!